বিজেপিকে হারানোর গুরুদায়িত্ব পিকের কাঁধে

     

বিহারে জেডিইউয়ের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি হয়ে গিয়েছে প্রশান্ত কিশোরের। দিল্লির কাজও আপাতত শেষ। হাতে শুধু বাংলা আর তামিলনাড়ুর। এই অবস্থায় নতুন আরও এক রাজ্যের আঞ্চলিক দলের ভার উঠতে চলেছে প্রশান্ত কিশোরের হাতে। কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামী ২০২৩-এর বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতিতে কৌশলী প্রশান্ত কিশোরকে পাশে চাইছেন।

কুমারস্বামীর নির্বাচনী কৌশলী হবেন পিকে! – কুমারস্বামী চাইছেন ২০২৩-এ শক্তি বাড়িয়ে ফিরে আসতে। সেজন্য প্রশান্ত কিশোরের সহায়তা প্রয়োজন বলে মনে করেন কুমারস্বামী। নির্বাচনী কৌশল নিরূপণের জন্য প্রশান্ত কিশোরের মতো দক্ষ কৌশলীকে পেলে জেডিএস অনেকদূর যেতে পারবে বলে বিশ্বাস। ইতিমধ্যে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করতে দু’দফা বৈঠকও হয়ে গিয়েছে। প্রশান্ত কিশোর পরবর্তী তিন বছরের দায়িত্বে – প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে যে ইতিমধ্যে বৈঠক হয়েছে, তা নিশ্চিত করেছেন প্রাক্তন-মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী। প্রশান্ত কিশোর পরবর্তী তিন বছর ধরে কাজ করবেন কর্ণাটকে- এই প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। কুমারস্বামী জানান, আমরা আত্মবিশ্বাসী যে, প্রশান্ত কিশোরের সংস্পর্শে এসে আমরা আশাতীত ফল করতে পারব।

প্রশান্ত কিশোর সম্মত, দাবি কুমারস্বামীর

কুমারস্বামী বলেন, প্রশান্ত কিশোর আমাদের সহায়তা করতে সম্মত হয়েছেন। তিনি আমাদের নির্বাচনের কৌশল তৈরি করবেন। ২০২৩ সালে আমরা ক্ষমতায় আসব প্রশান্ত কিশোরের পরিকল্পনার বাস্তব রূপায়ণ ঘটিয়ে, এ ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী। জেডিএসের নেতা-কর্মীরা মুখিয়ে আছেন পিকের সঙ্গে কাজ করার জন্য। হাই-টেক নির্বাচন কৌশল জেডিএসের – জেডিএস কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেধে রাজ্য শাসন করেছিল ১৪ মাস। তারপর বিজেপির বিএস ইয়েদুরাপ্পা শাসনভার কেড়ে নেন। তাঁর হাত থেকে রাজ্যের শাসনভার গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে দখল করতেই প্রশান্ত কিশোরের এই হাই-টেক নির্বাচন কৌশল নেওয়া হয়েছে জেডিএসের তরফে। পার্টির অভ্যন্তরীণ চাপ সত্ত্বেও প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ– কুমারস্বামী ও তাঁর পিতা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচডি দেবেগৌড়া পার্টির অভ্যন্তরীণ চাপ সত্ত্বেও প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করেছেন। দলের আধুনিকীকরণের জন্য প্রশান্ত কিশোরের সহায়তা জরুরি বলে মনে করেন কুমারস্বামী। ২০২৩-এ রাজ্যে জয়ের সম্ভাবনা বাড়ানোর জন্য দলও এ ব্যাপারে ঐক্যমত্য হয়েছে। প্রশান্ত কিশোর কর্ণাটকে জেডিএসেরও কৌশলী!– তবে এখনও অবধি স্পষ্ট নয়, কবে থেকে প্রশান্ত কিশোর কর্ণাটকে জেডিএসের হয়ে কৌশল নিরূপণের দায়িত্বভার নেবেন। এইচডি কুমারস্বামীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে কৌশল নিরূপণের দায়িত্ব নিয়ে প্রশান্ত কিশোর খুব শীঘ্রই বেঙ্গালুরুতে নামবেন। তখনই চূড়ান্ত কথা হবে।

প্রশান্ত কিশোরের ৮ বছরের জার্নি

কিশোর এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব, কংগ্রেস, অন্ধ্র প্রদেশের সিএম জগনমোহন রেড্ডি, শিবসেনা এবং এএপি নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন এবং তামিলনাড়ুতে ডিএমকে-র পক্ষে কাজ করার কথা রয়েছে তাঁর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close