মার্চে ব্যাংক ধর্মঘট, টানা ৫ দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক

আগামী মাসে ফের ব্যাংক ধর্মঘটের ( Bank Strike) ডাক দিল ব্যাংক কর্মী সংগঠনগুলি। বছরের শুরু থেকেই দফায় দফায় ব্যাংক ধর্মঘটের জেরে জেরবার সাধারণ মানুষ। গত ৩১ জানুয়ারি এবং ১ ফেব্রুয়ারির দু’দিনের ব্যাংক ধর্মঘটের জেরে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির স্মৃতি এখনও টাটকা। তার মধ্যে মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে ধর্মঘটের ডাক দিল ব্যাংক কর্মী সংগঠনগুলি। যার জেরে বহু ব্যাংক এবং ATM টানা ৫ দিন বন্ধ থাকার আশঙ্কা।

আগামী মাসে সাধারণ মানুষকে ফের দুর্ভোগের মধ্যে পড়তে হতে পারে। বেতন বৃদ্ধির দাবিতে সরব ব্যাংক কর্মীদের সংগঠনগুলি। এ নিয়ে ব্যাংকগুলির সংগঠন ইন্ডিয়ান ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের (IBA) সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে তারা। গত জানুয়ারিতে IBA-র সঙ্গে ট্রেড ইউনিয়নগুলির আলোচনা ভেস্তে যাওয়ার পরে ৩১ জানুয়ারি এবং ১ ফেব্রুয়ারি ধর্মঘটের পথে গিয়েছিল মোট ন’টি ইউনিয়ন। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ তাদের দাবি না পূরণ না করলে ফের ধর্মঘটের পথে যাওয়া হবে বলে আগেই হুমকি দিয়েছিল তারা। এই পরিস্থিতিতে বেতন বৃদ্ধি নিয়ে IBA-র সঙ্গে ট্রেড ইউনিয়নগুলির নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে। বিজনেস টুডের খবর অনুযায়ী এর মধ্যেই শনিবার অল ইন্ডিয়া ব্যাংক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশন (AIBEA) এবং ব্যাংক এমপ্লয়িজ ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া (BEFI) জানিয়ে দিল, এই আলোচনা ভেস্তে যাওয়ায় আগামী ১১ মার্চ থেকে ১৩ মার্চ তারা ফের ধর্মঘটের পথে নামছে। ১১ মার্চ বুধবার। ফলে শেষ পর্যন্ত ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকে ধর্মঘট হলে শুক্রবার পর্যন্ত ব্যাংকের কাজকর্ম বিপর্যস্ত হওয়ার আশঙ্কা। এ দিকে, রিজার্ভ ব্যাংকের নিয়ম অনুসারে, প্রতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে শনিবার ব্যাংক বন্ধ থাকে। আর রবিবার সাপ্তাহিক ব্যাংক বন্ধের দিন। ফলে ১১ মার্চ থেকে তিন দিনের প্রস্তাবিত ধর্মঘট হলে টানা ৫ দিন ব্যাংক বন্ধ থাকার আশঙ্কা। 

কমপক্ষে ২০% মজুরি বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে ব্যাংক ইউনিয়নগুলি। অন্যদিকে, ১২.২৫% পর্যন্ত মজুরি বৃদ্ধিতে রাজি হয়েছে IBA। এই প্রস্তাবে ট্রেড ইউনিয়নগুলি খুশি নয়। দাবি না মানা হলে আগামী ১ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্ট কালের ধর্মঘটের হুমকিও দিয়েছে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close