বোন ম্যারো ক্যান্সার আক্রান্তদের স্বাস্থ্য উন্নতিতে আবিষ্কার নয়া ওষুধ

বোন ম্যারো ক্যান্সারে আক্রান্তদের জন্য সুখবর। নয়া আবিষ্কৃত একটি থেরাপিউটিক ড্রাগ এই গুরুতর ক্যান্সারের রোগীদের বেঁচে থাকার হার বৃদ্ধি ও উন্নতিতে করতে পারে বলেই জানিয়েছেন গবেষকরা।

ব্রিটেনের নিউক্যাসেল ইউনিভার্সিটির গবেষকদের ক্লিনিকাল ট্রায়ালে, নতুন আবিষ্কৃত লেনালিডোমাইড নামক ওষুধের দ্বারাই চিকিত্সা করা হয়।

দ্য ল্যান্সেট অনকোলজি পত্রিকায় প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, যারা এই ওষুধ গ্রহণ করছেন না তাঁদের তুলনায় যারা লেনালিডোমাইড ড্রাগ ব্যবহার করেছেন তাঁদের সার্বিক স্বাস্থ্যের উন্নতি দেখা গিয়েছে।

নিউক্যাসেলের ক্যান্সার রিসার্চ এর উত্তরাঞ্চলীয় ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক গ্রাহাম জ্যাকসন বলেন, “এটি একটি বড় সাফল্য। প্রাথমিক থেরাপির পরে মায়লোমা রোগীদের শরীরে লেনালিডোমাইডের দীর্ঘমেয়াদী ব্যবহার উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাব ফেলে।”

মায়লোমা প্লাজমা কোষের ক্যান্সার এবং এটি শরীরের বিভিন্ন অংশ যেমন মেরুদণ্ড, মস্তিষ্ক, শ্রোণি এবং পাঁজরকে প্রভাবিত করতে পারে। বর্তমান চিকিত্সায় সাধারণত কেমোথেরাপি এবং স্টেম সেল ট্রান্সপ্লান্টই ব্যবহার করা হয় রোগ মোকাবিলায়।

জ্যাকসন বলেন, “এটি একটি বিশাল এবং গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। এটি লক্ষণীয় যে অল্প বয়সী রোগীদের জন্য লেনালিডোমাইড এই কঠিন বোন ম্যারো ক্যান্সারের পরেও তাদের সামগ্রিক বেঁচে থাকার উন্নতি ঘটায়।” তিনি আরও বলেন, “আমাদের গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে, স্টেম সেল ট্রান্সপ্লান্টেশন হয়েছে এমন নতুন রোগীদের জন্য লেনালিডোমাইড বিবেচনা করা উচিত”। গবেষণার অংশ হিসাবে, ১১৩৭ জন নতুন রোগীদের লেনালিডোমাইড রক্ষণাবেক্ষণ থেরাপি দেওয়া হয় এবং ৮৩৪ জন রোগীকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। অউরোটাই হয় তাঁদের প্রাথমিক চিকিত্সা সম্পন্ন হওয়ার পরে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close