প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে মমতার মতানৈক্য, সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে জোর জল্পনা বঙ্গ রাজনীতিতে

     

বঙ্গ রাজনীতির হাল ফেরাতে এবং আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভেটগুরু প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ মেনে মুখ্যমন্ত্রী এখন প্রতিটি পদক্ষেপে পা ফেলেন৷ শুধু তাই নয় প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ মেনেই রাজ্যের মানুষের সঙ্গে জনসংযোগ বাড়াতে রাজ্য সরকার শুরু করেছে দিদিকে বলো৷ এ অবধি সব ঠিক থাকলেও এবার নাকি মমতা ও প্রশান্তের মধ্যে মতানৈক্য দেখা দিতে শুরু করেছে বলে জোর গুঞ্জন উঠেছে রাজ্য রাজনৈতিক অন্দরে৷

সম্প্রতি মুখ্যমমন্ত্রীর বেশ কিছু সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কড়া সমালচমা করতে দেখা গিয়েছে প্রশান্ত কিশোরের ঘনিষ্ঠ মহলে৷ পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে প্রশান্তের মতানৈক্যের বিষয়টিও প্রকাস্যে আসছে৷ তাই এ নিয়েই শুরু হয়েছে জোর জল্পনা৷ এমনকি মমতার সচিবালয়েও প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে চাপা উত্তজেনা তৈরি হয়েছে বহুদিন ধরেই৷ এমনকি প্রশান্ত কিশোর এই রাজ্য নিয়ে কতটা ওয়াকবহল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্যে মন্ত্রীমহল থেকে৷ অন্যদিকে প্রশান্ত কিশোরের ক্ষমতা ও অধিকার নিয়েও উঠছে প্রশ্ন৷ মাঝরাতে বা ভোররাতে বিধায়কদের ফোন করে যা তা নির্দেশ দিচ্ছেন প্রশান্ত, জন সংযোগ বাড়ানো নিয়ে প্রশান্তের ছেলেমেয়েরাও বিধায়কদের ওপর চাপ দিচ্ছে৷ যা মোটেও মেনে নিতে পারছেন না তৃণমূলের জনপ্রতিনিধিরা৷ ইতিমধ্যেই পিকে কে নিয়ে সকলের মধ্যেই অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে৷ এমনকি ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গিয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশও নাকি শুনছেন না প্রশান্ত কিশোর৷ সকলেই মনে করছেন তিনি ধরাকে সড়া জ্ঞান করতে শুরু করেছেনে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close